চট্টগ্রাম, শনিবার ২১ সেপ্টেম্বর, ২০১৯

চবিতে বসেছে আলোর মেলা!!!

তারেক হোসাইন, ২৩তম ব্যাচ

পরিসর.কম

প্রকাশিত : ০৪:৪৮ পিএম, ৩০ এপ্রিল ২০১৯ মঙ্গলবার | আপডেট: ১১:২৪ এএম, ২ মে ২০১৯ বৃহস্পতিবার

চবিতে বসেছে আলোর মেলা!!!

চবিতে বসেছে আলোর মেলা!!!

শাটল থেকেই নেমে হাঁটা শুরু করলাম ক্যাম্পাসের দিকে। প্রচন্ড গরমে শরীরটাও সবার ক্লান্ত। গেইটে ডুকতেই দেখলাম স্মরণী চত্বরে লাগানো ছোট একটা বিল বোর্ড। শুরুতেই চোখে পড়ল ৩০% ছাড়! ক্লান্ত শরীরটা কেমন জানি এ লেখাটা দেখেই উজ্জীবিত হয়ে উঠল। কী লিখল? চোখে যখন তাকালাম, দেখলাম উপরেই লেখা আছে `বঙ্গবন্ধু বই মেলা-২০১৯।` ২৮ এপ্রিল থেকে শুরু হয়ে এ মেলা চলবে ২ মে পর্যন্ত। লোভটা আর সামলাতে পারলাম না। চলে গেলাম বুদ্ধিজীবী চত্বরে। যেখানে বসেছে এ আলোর মেলা। মানুষকে আলোকিত করার মেলা। যে আলোয় আলোকিত হবে নিজ সত্তা আর সেই সত্তায় আলোকিত হবে পুরো দেশ। `বই, বই এবং বই-ই দেখাবে পথ` এ স্লোগানকে সামনে রেখে পাঁচদিন ব্যাপী এ মেলায় আলোর ফেরিওয়ালা হিসাবে ঢাকা ও চট্টগ্রাম থেকে ৪০ টিরও বেশি প্রকাশনা এসেছে।


মেলা প্রাঙ্গণে বসেছে ৪৬ টি স্টল। দেশ ও বিদেশের বিখ্যাত সব কবি, সাহিত্যিক, প্রাবন্ধিক, এবং গবেষকদের লেখা বই, জার্নালে সাজানো আছে এসব স্টলে। ৩০% ছাড়ে মিলবে এসব বই ও জার্নাল। পাঠক কুলে কিছুটা জ্ঞানের পিপাসা মেটাতে প্রতিদিন বিকেল তিনটা থেকে চারটা পর্যন্ত রয়েছে বিশ্ববিদ্যালয়ের বড় বড় বিজ্ঞদের আলোচনা সভা। এরপরই রয়েছে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। বঙ্গবন্ধু চেয়ার(বঙ্গবন্ধু গবেষণা কেন্দ্র), চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়, এবং চট্টগ্রাম সৃজনশীল প্রকাশক পরিষদ কর্তৃক আয়োজিত এ মেলা জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে আয়োজন করা হয়েছে। রবিবার (২৮ এপ্রিল) সকালে উদ্বোধন করেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য ড. ইফতেখার উদ্দিন চৌধুরী। তারপর থেকেই এ মেলা পাঠক কুলে সাড়া ফেলেছে। শিক্ষার্থী, শিক্ষকমন্ডলী যাচ্ছেন বই কিনতে।

এ আলোর মেলা দেখে মনে পরে যায় বাংলাদেশের আরেক আলোর ফেরিওয়ালা প্রফেসর আব্দুল্লাহ আবু সাইদ স্যার একটি কথা, তিনি বলেন , "বই হয় এমন এক জিনিস, যার শুরু হয় আনন্দ দিয়ে এবং শেষ হয় জ্ঞান দিয়ে।" আপনিও আসুননা কিছুটা বিনোদিত হতে, আর সাথে কিছু আলোর মশাল নিয়ে যেতে!